আরিফিন শুভর সেকাল-একাল

বিনোদন প্রতিদিন জুআয়রা হোসেন || 28 January 2018

নতুন বছরে মুক্তি পাবে নতুন বেশ কয়েকটি ছবি। ২০১৭ ছিল অনেক অভিনেতার জন্য বেশ ব্যবসা সফল। ২০১৮ও অনেক অভিনেতার জন্য অনেক সফল একটি বছর হতে যাচ্ছে, তার মধ্যে বিশেষ ভাবে রয়েছেন আরিফিন শুভ।


এই কিছুদিন আগেও মানুষ হলে গিয়ে সিনেমা দেখার অভ্যাসটা অনেকটা হারিয়ে ফেলেছিল। কিন্তু বর্তমানে বাংলা চলচ্চিত্রের মান এবং ভিন্ন ঘরানার চলচ্চিত্র আসার পর থেকেই এই দৃশ্য অনেকটা পালটে গিয়েছে। মানুষ হলে গিয়ে সিনেমা দেখছে।

বর্তমান সময়ে জনপ্রিয়তার শীর্ষে অবস্থান করছেন অভিনেতা আরিফিন শুভ। ২০০৭ সালে হ্যা/না সিরিজের মাধ্যমে তিনি টেলিভিশন জগতে প্রবেশ করেন তিনি। ২০১০ তিনি ‘জাগোঃ ডেয়ার টু ড্রিম’ সিনেমায় অভিনয় করেন। এর মাধ্যমে বড় পর্দায় অভিষেক হয় শুভর। এরপর বড় পর্দা থেকে বেশ কিছুদিন দূরে ছিলেন শুভ। যদিও ছোটপর্দায় অভিনয় চালিয়ে গেছেন। ২০১৩তে ‘পূর্ণদৈর্ঘ্য প্রেমকাহিনী’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে তিনি পূণরায় চলচ্চিত্রে অভিনয় শুরু করেন। যদিও এই সিনেমাতে শুভকে দেখা যায় খলচরিত্রে। এই চলচ্চিত্রে খলচরিত্রে শুভর অভিনয় বেশ প্রশংসা কুড়ায় দর্শকদের।

এরপর ২০১৪তে অভিনয় করেন জাজের ‘অগ্নি’ চলচ্চিত্রে। এই সিনেমাতেও শুভর অভিনয় মন কাড়ে দর্শকদের। এই সিনেমায় তার বিপরীতে অভিনয় করেন মাহিয়া মাহি।

২০১৫ তে শিহাব শাহীনের ‘ছুঁয়ে দিলে মন’ চলচ্চিত্রের মাধ্যমে বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করেন শুভ। সিনেমাটি ২০১৫ এর সবচেয়ে ব্যবসাবহুল ছিল। সিনেমাটি দর্শকদের ব্যাপক সাড়া পায়।

২০১৬ শুভ ভারত এবং বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় ‘নিয়তি’ সিনেমাতেও অভিনয় করেছেন। নিয়তির ‘ঢাকাই শাড়ি’ গানটি বেশ জনপ্রিয়তা লাভ করে। আজকাল প্রায় অনেক অনুষ্ঠানেই এই গানটি শুনতে পারা যায়। একই বছর মুক্তি পায় তার অভিনীত ‘অস্তিত্ব’ এবং ‘মুসাফির’। তিনটি সিনেমাতেই সমানভাবে নাম কুড়ান এ অভিনেতা।

আরিফিন শুভর জন্য ২০১৭ ছিল সবচেয়ে সফল বছর। শুভ অভিনীত অ্যাকশন থ্রিলার সিনেমা ‘ঢাকা অ্যাটাক’ দর্শকদের মধ্যে বেশ সাড়া ফেলেছিল। এটি ছিল শুভর ক্যারিয়ারের জন্য টার্নিং পয়েন্ট। ‘ঢাকা অ্যাটাক’-এর মাধ্যমে জনপ্রিয়তার তুঙ্গে উঠেন এই অভিনেতা। এখানে তাকে দেখা যায় বোমা নিষ্ক্রিয় দলের প্রধান হিসেবে। তার অভিনয় মন কাড়ে দর্শকদের।

২০১৭তে তিনি ৭টি ছবিতে অভিনয় করেন। এর মধ্যে ‘প্রেমী ও প্রেমী’, ‘ধ্যাততেরিকি’ ও ‘ডিটেক্টিভ’ এই ৩টি ছবিতে তার বিপরীতে কাজ করেছেন নুসরাত ফারিয়া।

২০১৮ তে শুভর ২টি সিনেমা মুক্তি পাওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে। আলমগীরের ‘একটি সিনেমার গল্প’ সিনেমায় তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন কলকাতার অভিনেত্রী ঋতুপর্না সেনগুপ্তা। অপর সিনেমাটি হচ্ছে জাকির হোসেনের ‘ভাল থেকো’। এই সিনেমায় তার বিপরীতে অভিনয় করেছেন তানহা তাসনিয়া। তাছাড়া লাক্স-চ্যানেল আই সুপারস্টারে এবার বিচারক হিসেবে দেখা যাবে শুভকে।

শুভ দুইবার সেরা অভিনেতা হিসেবে মেরিল প্রথম আলো পুরষ্কার অর্জন করেন। অভিনয় দিয়ে শুভ নিজেকে বাংলাদেশ চলচ্চিত্রের শীর্ষ নায়কদের একজন হিসেবে নিজের অবস্থান প্রতিষ্ঠা করেন।

The rise of Arifin Shuvo as an Actor

Entertainment Zuaira Hossain on 28 January 2018

A new year has been started. Plenty of movies will be released in this year. 2017 was commercially successful for many actors and also for the film industry. 2018 will also be successful for many Bangladeshi film actors. Arifin Shuvo is on the top on that list.


Arifin Shuvo is one of the famous actors of Bangladeshi film industry. He entered the film industry back in 2007 by acting in a series called ‘Ha/Na’. After that he acted in the film ‘Jaago: Dare to Dream’. This is his debut film in Bangladeshi film industry. After that Shuvo did not act in any cinema for a long time. Though he starred in telefilms.

After the long break, Shuvo starred in ‘Purno Doirgho Prem Kahini’ in 2013. Shuvo acted in negative role in this film. People liked his acting in this film.

Arifin Shuvo acted in Jaaz’s film ‘Agni’. Mahiya Mahi co-starred with Shuvo in this film. His acting was also liked by the audience like always.

In 2015 Shuvo starred in Shihab Shahin’s film ‘Chuye Dile Mon’. Shuvo become very popular after the film. This was the commercially successful movie of that year. People also praised the movie.

‘Niyoti’ was the first Indo-Bangladesh film for Shuvo. It was released in 2016 and was a successful one. The song ‘Dhakai Shari’ of the film is very popular. Almost in every occasion or events this song is heard. Shuvo’s another two films ‘Astitto’ and ‘Musafir’ were also released on the same year.

2017 was a big year for this actor. He gained a huge success by acting in the action thriller film ‘Dhaka Attack’. Shuvo was seen as the head of Bomb Squad Team of Police. This film was a turning point for his career.

He also starred in another 7 films in the year. Three of the films are co-starred with Nusrat Faria. They are: ‘Premi O Premi’, ‘Dhatteriki’ and ‘Detective’.

2 of Shuvo’s films are set to be released in 2018. One is Alamgir's ‘Ekti Cinemar Golpo’. Indian actress Rituparna Sengupta is also starring. Another one is Jakir Hossain’s ‘Bhalo Theko’. Tanha Tasnia is acting with him in the film. He will also be seen as a judge in Lux-Channel i superstar.

Shuvo won the Meril-Prothom Alo Award twice as the best actor undoubtedly has earned this fame and reward through his great acting.

There was time when people were not interested to go to cinema hall to watch Bangla movies. The scenario is almost changed now. People go to theatres to watch bangla movies after releasing as the stereotypical genre has been put down and real artists are aiming to make acting as their profession. The genre of bangla movies has changed a lot. Also due to the improved quality of the movies people are getting the interest back to watch bangla movies.
 
A lot of other old-come-new faces and complete newcomers are to be starred in this and the following years. Viewers can expect a good lot of  screen-times with quality theatres this year. Finally, the Bangladeshi film industry has taken a turn to be well representable even overseas and Arifin Shuvo is just one of those shining stars who are to make this journey a good and entertaining one.