সাগর কন্যা কুয়াকাটা

ভ্রমণ বিবরণ জুআয়রা হোসেন || 14 February 2018

দেশের দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলে অবস্থিত সমুদ্র সৈকত ও পর্যটন কেন্দ্র কুয়াকাটা। দিগন্তজোড়া নীল আকাশের নিচে নীরবে নিয়ে দাঁড়িয়ে আছে অসাধারণ এই বেলাভূমি।


পর্যটকদের কাছে সাগর কন্যা হিসেবে পরিচিত কুয়াকাটা সমুদ্র সৈকত পটুয়াখালি জেলায় অবস্থিত। প্রায় ১৮ কিলোমিটার দৈর্ঘ্যের এই সমুদ্র সৈকত হচ্ছে বাংলাদেশের একমাত্র সমুদ্র সৈকত যেখান থেকে সূর্যোদয় এবং সূর্যাস্ত উপভোগ করা যায়। যা দেখার নেশায় হাজার হাজার পর্যটক ঘুরতে আসেন কুয়াকাটায়।

সৈকতের পূর্ব দিকে শোভা বর্ধনের জন্য বন বিভাগের উদ্যোগে লাগানো হয়েছে নারিকেল গাছ, ঝাঊবন ইত্যাদি। তাছাড়া আশেপাশে রয়েছে বেশ কয়েকটি পিকনিক স্পট, যেখানে রান্নার ব্যবস্থাসহ সব রকমের ব্যবস্থা রয়েছে। ঝাঊবন থেকে কিছু দূরেই রয়েছে কুয়াকাটা ইকো পার্ক। ভিড় কম থাকাতে অনেকেই কুয়াকাটা আসতে পছন্দ করেন। সমুদ্রতীরে বসে একাকী সময় কাটানো যায়। বালুকাময় বেলাভূমি, সমুদ্রের নীল পানি, সবুজ গাছপালা আর নীল আকাশ সব মিলিয়ে যেন এক স্বর্গভূমি।

সৈকতে আশেপাশে ঘুরে দেখার জন্য রয়েছে ভাড়ায় চালিত মোটরসাইকেল এবং ঘোড়া। যারা বাইক চালাতে ভালবাসেন তারা বাইক ভাড়া করে সৈকতে বাইক চালানো উপভোগ করতে পারেন। আর সমুদ্রে ভ্রমণের জন্য রয়েছে জাহাজ, ট্রলার, স্পিডবোট। অনেকেই এসব জাহাজ এবং ট্রলারে করে পর্যটকরা সুন্দরবনের অংশবিশেষ ফাতরার চর, সোনার চর, কটকা, হাঁসার চর, গঙ্গামতির লেক ইত্যাদি বিভিন্ন জায়গা ঘুরে বেড়ান। কাউয়ার চরে দেখা মিলবে লাল কাঁকড়ার ছুটোছুটি। কুয়াকাটা থেকে ট্রলার করে সমুদ্রের মাঝখান থেকেও ঘুরে আসা যায়।

কুয়াকাটায় শৌখিন জিনিসের দোকানের সংখ্যা সীমিত। তবে প্রয়োজনীয় ও শৌখিন অনেক কিছুই পাওয়া যাবে সেখানে। সুন্দর তাঁতের কাজের জিনিস আর বার্মিজ আচারের পসরা এখানে।  কুয়াকাটার আরেকটি আকর্ষণ হচ্ছে শুটকি পল্লী। ইলিশ, লইট্যা, রূপচাঁদাসহ নানা রকমের সামুদ্রিক মাছের শুটকি পাওয়া যাবে সেখানে। এখান থেকে সারাদেশে শুঁটকি সরবরাহ করা হয় এবং বিদেশেও রপ্তানি হয়।

কলাপাড়া উপজেলায় বাড়তি আকর্ষণ হিসেবে রয়েছে আদিবাসী রাখাইনদের স্থাপত্য নিদর্শন। রাখাইন সম্প্রদায়ের প্রায় দুইশ বছরের পুরনো ঐতিহ্য। দেশের সবচেয়ে বড় বৌদ্ধ মন্দিরটি কুয়াকাটা থেকে ১০ কিলোমিটার দূরে অবস্থিত। সেখানে রয়েছে গৌতম বুদ্ধের বিশাল বড় মূর্তি। আরাকান রাজ্য থেকে বিতারিত হয়ে রাখাইনরা প্রথমে চট্টগ্রাম এবং পরে পটুয়াখালির এই এলাকায় বসতি স্থাপন করে।

ঢাকা থেকে কুয়াকাটার দূরত্ব ৩৮০ কিলোমিটার এবং বরিশাল থেকে দূরত্ব ১০৮ কিলোমিটার। বাসে কিংবা লঞ্চে করে যাওয়া যাবে কুয়াকাটা। লঞ্চে গেলে কেবিন কিংবা ডেক ভাড়া করা যাবে পছন্দ অনুযায়ী। লঞ্চ ভ্রমণও বেশ উপভোগ্য। আর সড়কপথে রয়েছে এসি এবং নন-এসি দুই ধরণের বাসই পাওয়া যাবে। আজকাল সব ধরণের টিকেট অনলাইনে কিনতে পারা যায়। সহজ, বিডি টিকেটস, বাসবিডি ইত্যাদি থেকে অনলাইন টিকেট কেনা যাবে। তাছাড়া থাকার জন্য এই পর্যটন নগরীতে রয়েছে অনেক হোটেল এবং গেস্ট হাউজ।

Kuakata: The daughter of the sea

Travel Zuaira Hossain on 14 February 2018

One of the famous tourist attractions in Bangladesh Kuakata is situated in the South-western side of the country. It is known for its panoramic sea beach.


Kuakata is known as Sagor Konna (Daughter of the sea) to local people and tourists. The 18km long beach is situated in Patuakhali district. One can enjoy sunrise and sunset from the beach. Thousands of tourists visit the place to enjoy this.

Forest Department has planted coconut tree and jhaubon on the east side of the beach which has increased the beauty of the beach. There are some beautiful picnic spots around. They have all types of arrangements for picnic. Kuakata eco park is a bit far away from the jhaubon. There is not much crowd on this beach so people love to visit the place as they can enjoy the peace and serenity. Sandy beach, Blue Ocean, greenery and blue sky is the perfect combination to enjoy.

One can roam around the beach by hiring motorbike or horse. People who loves bike ride can enjoy riding bike on the beautiful beach. There are ship, trawlers and speed boats for a trip on the sea. There are some beautiful sand islands around which also attracts the tourists. They are Fatrar chor, Shonar chor, Kotka, Hasher chor, Gongamotir lake etc. There is a part of the Sundarban which can also be visited from Kuakata. Another place is kauar chor where red crabs are seen. One can also roam around the sea by hiring ship or trawler.

There are a few shops to buy fancy things. Beautiful handloom products and also various kinds of pickles are available in these shops. Another attraction of the place is the dry fish. It is also famous for dry fish processing. Hilsa, rupchanda, loitta and various kinds of dry fishes can be bought from Kuakata. These dry fishes are also exported to foreign countries.

There are some Buddhist temples in this place. Also Rakhain community live here and they have their two hundred years of tradition. The biggest Buddhist temple is 10km away from the beach. There is a large monument of Gautam Buddha. After being abandoned from Arakan State, the Rakhains first settled in Chittagong and later Patuakhali.

Kuakata is 380 km away from Dhaka and the distance from Barisal is 108 km. One can go to Kuakata by Launch or by bus. Launch journey can be very thrilling and enjoyable. One can purchase ticket online from shohoz, busbd, bdtickets etc. There are many hotels and guest houses in Kuakata for staying.