বল টেম্পারিং রোধে এবার স্মার্ট বল আনছে অস্ট্রেলিয়া

খেলাধুলা দীপান্বিতা সূত্রধর || 3 April 2018

আসন্ন অ্যাশেজ সিরিজে বল টেম্পারিং এর মত অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে ‘স্মার্ট ক্রিকেট বল’ নিয়ে আসছে অস্ট্রেলিয়া। এই বল শুধু বল টেম্পারিং প্রতিরোধ করবে তাই না কোন খেলোয়াড় যদি এর চেষ্টা চালায় তাহলে মাঠে অবস্থিত আম্পায়ারকেও এই বিষয় সম্পর্কে অবগত করবে।


বল টেম্পারিং নিয়ে গত কয়েক দিন ধরে বেশ তোলপাড় চলছে মিডিয়া এবং ক্রিকেট বিশ্বে। আর এই আসন্ন অ্যাশেজ সিরিজে বল টেম্পারিং এর মত অনাকাঙ্ক্ষিত ঘটনা এড়াতে ‘স্মার্ট ক্রিকেট বল’ নিয়ে আসছে অস্ট্রেলিয়া। এই ‘স্মার্ট ক্রিকেট বল’ এর চূড়ান্ত পরীক্ষা নিরীক্ষা চলছে। এই বল শুধু বল টেম্পারিং প্রতিরোধ করবে তাই না কোন খেলোয়াড় যদি এর চেষ্টা চালায় তাহলে মাঠে অবস্থিত আম্পায়ারকেও এই বিষয় সম্পর্কে অবগত করবে। 
অস্ট্রেলিয়ার সুইনবার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের অধ্যাপক ফ্রাঞ্জ কনস্ট্যান্টিন ফস এবং তার অধীন পিএইচডি শিক্ষার্থী বাটডেলগার ডলজিন এই স্মার্ট বলটি সত্যিতে পরিণত করেন। আর এই পুরো প্রক্রিয়াটিতে অস্ট্রেলিয়ার প্রাক্তন প্রথম শ্রেণীর ক্রিকেটার ড. রেনে ফেরদিন্যান্ডের সহযোগিতা করেন। 
প্রথমে স্মার্ট বলটি অধ্যাপক কনস্ট্যান্টিন ও ড. রেনে বানিয়েছিলেন স্পিন বোলারদের বলের গতি ও অন্যান্য বিষয়গুলো খুঁতিয়ে দেখার জন্য। অধ্যাপক কনস্ট্যান্টিনের প্রযুক্তিগত ধারণা আর ড. রেনে ফেরদিন্যান্ডের ক্রিকেট বিষয়ক গভীর জ্ঞানের ফল এই অত্যাধুনিক বল। 
স্মার্ট বলে প্রধান তিনটি প্রধান অংশ থাকবে। নতুন প্রযুক্তির এই বলে থাকবে একটি মাইক্রো চিপ সাথে ক্ষুদ্র ক্যামেরা। পুরো বলটি আবৃত থাকবে বিশেষ ধরণের রসায়নিক আবরণ দিয়ে। মাইক্রো চিপটি বলে কোন ধরণের গর্ত বা কামড় দিয়ে বিকৃত করা থেকে বিরত রাখবে। ক্যামেরাটি হবে নাইন নেটওয়ার্কের স্ট্যাম্প ক্যামের একটি ক্ষুদ্র সংস্করণ। খেলার সময় এটি তৃতীয় আম্পায়ারের কাছে লাইভ আলোকচিত্র দিবে। পুরো বলটি ন্যানো পার্টিকেল দিয়ে আবৃত থাকবে যাতে শিরিষ কাগজ বা অন্য কোন খসখসে কিছু দিয়ে বল টেম্পারিং না করা যায়। এছাড়াও বলে সীমে বিশেষ ধরণের ইন্ডিক্যাটোর দেয়ার কথা আছে যাতে বলের সীম নখ দিয়ে খুঁচিয়ে যে টেম্পারিং করা হয় তা না করা যায়। 
 অধ্যাপক কনস্ট্যান্টিন আশা করেন যে এই স্মার্ট বলের মাধ্যমে বল টেম্পারিং এর মত অপকর্ম রোধ করা যাবে। অস্ট্রেলিয়ার অধিনায়ক স্টিভ স্মিথ; ডেভিড ওয়ারনার আর ক্যামেরন ব্যাঙ্ক্রফটের বল টেম্পারিং ঘটনার পরে ক্রিকেট বিশ্বে বল টেম্পারিং নিয়ে হঠাৎই শোরগোল পড়েছে। তারা পরে স্বীকার করেছেন যে শিরিষ জাতীয় কাগজ বল টেম্পারিং করে। 
গবেষক এবং প্রাক্তন ক্রিকেটারগণ আশা করছেন যে স্মার্ট বলটি ক্রিকেট দুনিয়ায় সবচেয়ে লজ্জাজনক কাজের পরিসান ঘটাবে। উচ্চ প্রযুক্তির এই স্মার্ট বল নির্মাণে প্রতি বলে খরচ হবে প্রায় ২০০০ ইউ এস ডলার। কিন্তু ক্রিকেট বিশারদগণ মনে করেন টেস্ট ক্রিকেটের মর্যাদা পুনরদ্ধারের জন্য এতটুকু খরচ কিছুই না। 
আগামী বছর জুলাই মাসে হতে যাওয়া অ্যাশেজ সিরিজে যাতে স্মার্ট বলটি ব্যবহার করা যায় তার জন্য অস্ট্রেলিয়ান ও ব্রিটিশ ক্রিকেট কর্তৃপক্ষ সুইনবার্ন বিশ্ববিদ্যালয়ের গবেষকদের কাছে আগামী বছরের এপ্রিল মাসের মধ্যে এটিকে ব্যবহারের উপযুক্ত হিসাবে দেখতে চেয়ে বিশেষ অনুরোধ করেছেন। 

Smart cricket ball will stump ball tampering issues

Sports Dipanwita Sutradhar on 3 April 2018

To avoid the unwanted incident like ball-tampering Australia is coming with 'smart cricket ball' and it will be in this upcoming Ashes series. The final test of this 'smart cricket ball' is in progress. This ball will not only prevent ball tampering, so if a player tries to do this, then the field umpire will also be informed by the system.


The world and media have been going crazy on the topic ball tampering for the last few days. To avoid the unwanted incident like ball-tampering Australia is coming with 'smart cricket ball' and it will be in this upcoming Ashes series. The final test of this 'smart cricket ball' is in progress. This ball will not only prevent ball tampering, so if a player tries to do this, then the field umpire will also be informed by the system. 
The ball has been developed by Swinburne University’s Professor Franz Konstantin Fuss and Ph.D. candidate Batdelger Doljin, with assistance from Dr. Rene Ferdinands, an ex-first class cricketer.
Firstly, the smart ball was made by Professor Konstantin and Dr. Rene to look after the pace and other factors spin bowlers. Professor Konstantin’s technical concept and Dr. Rene Ferdinand’s deep knowledge of cricket are the reason that this kind of high tech ball is not a dream anymore. 
There are three main parts that will be in the smart ball. There will a cohesive microchip, a camera and chemical components. The whole ball will be covered with special kind of chemical coat. The microchip will prevent players from distorting the ball with any type of hole or bite. The camera will be a small version of the nine network stamp cam. During the game, it will give live snap to the third umpire.
The whole ball will be covered with a Nanoparticle so that the ball cannot tamper with something with sandpaper or anything else. There might be a special indicator in the seam so that the ball cannot tamper with the nails.
Professor Konstantin hopes that with this smart dynamism, the crime like ball tempering can be prevented. Australia ex-Captain Steve Smith; David Warner and Cameron Bancroft are banned from any international matches after the ball tampering incident. They later admitted that they tamper the ball with sandpaper.
Researchers and former cricketers are hoping that the smart ball will prevent one of the most shameful acts in the cricket world. The cost of this high tech smart ball will cost about 2000 US dollars (per ball). However, cricket experts believe that the cost of retaining the status of Test cricket is nothing to this expense. 
Australian and British cricket authorities have made special requests to Swinburne University researchers to complete the work by 1 April of the next year and it will most probably use in the upcoming Ashes Series in July 2019.