রয়টার্সের ফটোগ্রাফী দলের সাথে পুলিৎজার পেলেন বাংলাদেশী ফটোজার্নালিস্ট

ব্যবসা বাণিজ্য জুআয়রা হোসেন || 18 April 2018

আন্তর্জাতিক সংবাদ সংস্থা রয়টার্স এর একটি দল কিছুদিন আগে মায়ানমারের রোহিঙ্গা শরণার্থীদের দুর্দশা নিয়ে তোলা ছবির জন্য পুলিৎজার পুরস্কার বিজয়ী ঘোষিত হয়। বাংলাদেশী ফটোজার্নালিস্ট মোহাম্মদ পনির হোসেনও এই দলের সদস্য ছিলেন।


বাংলাদেশী ফটোজার্নালিস্ট মোহাম্মদ পনির হোসেন রয়টার্সের পুলিৎজার পুরস্কার বিজয়ী দলের সদস্য। প্রথম বাংলাদেশী হিসেবে তিনি এই পুরস্কার লাভ করেন। পুলিৎজার পুরস্কারকে মার্কিন যুক্তরাষ্ট্রে ছাপার সাংবাদিকতা, সাহিত্য এবং সঙ্গীতের সর্বোচ্চ পুরস্কার হিসেবে বিবেচনা করা হয়। হাঙ্গেরীয় বংশোদ্ভূত আমেরিকান সাংবাদিক জোসেফ পুলিৎজার এই পুরস্কারের প্রচলন করেছিলেন। তিনি ছিলেন একাধারে একজন সফল লেখক এবং সংবাদপত্র প্রকাশক। ১৯১১ সালে তাঁর মৃত্যুর পর তাঁর ইচ্ছানুযায়ী এই পুরস্কার এর প্রবর্তন হয়। ১৯১৭ সালে জুন মাসে প্রথম এই পুরস্কার প্রদানের ঘোষণা দেয়া হয়।

বর্তমানে প্রতিবছর এপ্রিল মাসে এই পুরস্কারটি ঘোষিত হয়। সাংবাদিকতা, আলোকচিত্র, সঙ্গীত, নাটক, কবিতা ইত্যাদির ন্যায় ২১ টি ক্ষেত্রে এই পুরস্কার প্রদান করা হয়। নিউইয়র্কের কলম্বিয়া ইউনিভার্সিটি পুলিৎজার পুরস্কার প্রদানের তত্ত্বাবধায়ক হিসেবে ভূমিকা পালন করে। আমেরিকান সাংবাদিকতায় পুলিৎজার সবচেয়ে মর্যাদাপূর্ণ পুরস্কার।

পনিরের ফেসবুক প্রোফাইল থেকে জানা যায় তিনি ১লা জুলাই, ২০১৬ সালে থমসন রয়টার্সে কাজ শুরু করেন। এছাড়া তিনি জুমা প্রেসেও কাজ করেছেন। তিনি ঢাকার নর্থ সাউথ বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতক ডিগ্রী লাভ করেন। মায়ানমার থেকে বিতাড়িত হয়ে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের কষ্টের বর্ণনাকারী ফটোগ্রাফির জন্য পুলিৎজার পুরস্কার জিতেছেন রয়টার্স দল। সেই দলের সদস্য ছিলেন পনির। তার তোলা তিনটি ছবি ছিল সেখানে। পূর্বে পনিরের তোলা অনেক ছবি বিভিন্ন মাধ্যমে প্রকাশিত হত।

রয়টার্সের এই দলটি কক্সবাজারের রোহিঙ্গা শরণার্থী শিবিরে বেশ কয়েকমাস অবস্থান করেছিলেন এই ডকুমেন্ট বানানোর জন্য। তারা মায়ানমার থেকে বাংলাদেশে আসা রোহিঙ্গাদের দুর্দশা এবং কষ্টে জীবনযাপনের কথা আলোকচিত্রের মাধ্যমে বিশ্ববাসীর কাছে তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন।

মায়ানমারের রাখাইন রাজ্যের সংখ্যালঘু জনগোষ্ঠী রোহিঙ্গা। অধিকাংশ রোহিঙ্গা ইসলাম ধর্মানুসারী। মায়ানমারের সামরিক বাহিনী দ্বারা শুরু হওয়া গণহত্যা থেকে পরিত্রাণ পেতে অনেক রোহিঙ্গা পালিয়ে বাংলাদেশে আশ্রয় নেয়। গত বছর প্রায় ৮ লাখ রোহিঙ্গা মায়ানমার থেকে জীবন বাঁচাতে পালিয়ে বাংলাদেশে আসে।

পনিরের একটা ছবিতে দেখা যায় টেকনাফে পৌঁছার জন্য মায়ানমার থেকে রোহিঙ্গারা একটা ভেলা করে নাফ নদী পার হচ্ছে। আরেকটি ছবিতে দেখা যায় বর্ডার পার হওয়ার পর টেকনাফে প্রবল বৃষ্টি থেকে রক্ষা পেতে আশ্রয় নেয়ার চেষ্টা করছে রোহিঙ্গারা। তাদের এই ছবিগুলোর মাধ্যমে তারা মায়ানমারে রোহিঙ্গা শরণার্থীদের উপর হওয়া সহিংসতা তুলে ধরার চেষ্টা করেছেন।

Bangladeshi photojournalist among the Reuters’ Pulitzer winning team

Business Zuaira Hossain on 18 April 2018

A Reuters team was honored with the Pulitzer Prize for their extraordinary photographs which exposed the world the sufferings of the Rohingya. Bangladeshi photojournalist Mohammad Ponir Hossain was a member of this team.


Bangladeshi photojournalist Mohammad Ponir Hossain was the member of the Pulitzer Prize-winning team of Reuters. He is the first Bangladeshi to get this prestigious prize. The Pulitzer Prize is the most prestigious prize in American journalism, literature, and music. This was introduced by Joseph Pulitzer who was an American journalist. He was a successful writer along with that he was a newspaper publisher. After his death in 1911, according to his wish, the prize was introduced. The prize was first announced in June 1917.

The prize is announced every year in April now. The award is given in 21 sections such as journalism, photography, music, poetry, drama etc. This is administered by Columbia University in New York City. This is considered as the most significant prize in American journalism.

According to Ponir’s facebook profile, he started working with Thomson Reuters on 1st July 2016. He also worked for ZUMA press. Ponir graduated from North South University, Dhaka. Reuters team won the Pulitzer Prize for their photography where they tried to show the violence Rohingya refugees faced. Ponir was a member of that team and his photography was also there. Before that, his photo was published in different media.

The Reuters team spent months in the refugee camp in Cox’s Bazar as they wanted to document the crisis and the violence of Rohingya which they faced in Myanmar.

Rohingya is a minority population group in Rakhine state. Most of them are Muslim. They fled to Bangladesh to protect themselves from the mass killing by the Myanmar military. Last year around 8 lakh Rohingya came to Bangladesh as refugee.

In one photo taken by Ponir shows that a group of Rohingya crossing the Naf river to reach Bangladesh by an improvised raft. Another photo shows some Rohingya people are trying to take shelter from heavy rain. These photos show the violence they faced in Myanmar and after that came to neighboring countries to save their life.