পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞার পর বাংলাদেশের সাবেক অধিনায়ক আশরাফুল কি ফিরছেন জাতীয় দলে

খেলাধুলা দীপান্বিতা সূত্রধর || 16 August 2018

দীর্ঘ পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি পেলেন আশরাফুল, যেকোনো দিন ফিরে আসতে পারেন জাতীয় দলে- এরকমই আশা করছেন আশরাফুল ভক্ত ক্রিকেটপ্রেমীদের। জাতীয় দলের সাথে সাথে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) খেলার অনুমতিও মিলবে সামনের মৌসুমে। ৩৪ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার কি আদৌ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার মতো ফিট?


দীর্ঘ পাঁচ বছরের নিষেধাজ্ঞা থেকে মুক্তি পেলেন মোহাম্মদ আশরাফুল, যেকোনো দিন ফিরে আসতে পারেন জাতীয় দলে- এরকমই আশা করছেন আশরাফুল ভক্ত ক্রিকেটপ্রেমীদের। জাতীয় দলের সাথে সাথে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল) খেলার অনুমতিও মিলবে সামনের মৌসুমে। ৩৪ বছর বয়সী এই ক্রিকেটার কি আদৌ আন্তর্জাতিক ক্রিকেট খেলার মতো ফিট? – ভক্তদের মনে এই প্রশ্নই এখন ঘুরপাক খাচ্ছে।
২০১৩ সালে বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগে (বিপিএল)ম্যাচ পাতানো এবং স্পট ফিক্সিংয়ের দায়ে পরের বছর আশরাফুলকে ৮ বছরের জন্য নিষিদ্ধ করে বিপিএল এন্টি করাপশন ট্রাইব্যুনাল সাথে ১০ লাখ টাকা জরিমানা করা হয়। ২০১৩ সালের সেপ্টেম্বর মাসে বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ডের ডিসিপ্লিনারি প্যানেল মোহাম্মদ আশরাফুলের শাস্তি কমিয়ে পাঁচ বছর করার নির্দেশ দেয়। 
নিষেধাজ্ঞা উঠে গেলেও জাতীয় দলে এই মুহূর্তে হয়ত খেলা হবে না আশরাফুলের। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দলের প্রধান নির্বাচক মিনহাজুল আবেদিন নান্নু জানান যে জাতীয় দলে খেলতে হলে আশরাফুলকে সব ফরম্যাটের ক্রিকেটে ভাল পারফর্ম করে আসতে হবে। ক্রিকেট অপারেশন্স কমিটির চেয়ারম্যান আকরাম খান জানিয়েছেন, আশরাফুলের বিষয়টি নির্ধারণ হবে বোর্ডের নীতি নির্ধারণী ফোরামে। অন্যদিকে বিসিবি পরিচালক এবং মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান জালাল ইউনুস ও আশরাফুলের জাতীয় দলে আসা সম্পর্কে একই মতামত পোষণ করেন। 
প্রধান নির্বাচক, টিম ম্যানেজম্যান্ট, নির্বাচক বোর্ডের কথায় হতাশ কিংবা মন খারাপ করছেন না মোহাম্মদ আশরাফুল। তিনি মনে করেন সময়ের সাথে সাথে জাতীয় দলের খেলার ধরণের অনেক পরিবর্তন এসেছে। তাই হঠাৎ করেই জাতীয় দলে খেলা শুরু করতে পারবেন এরকম আশা করছেন না আশরাফুল। তিনি নিজের অধ্যাবসায়, পরিশ্রম আর পরীক্ষা দিয়ে জাতীয় দলে খেলার আশা পোষণ করেন। প্রাথমিকভাবে ফিটনেস টেস্টে পাশ করতে হবে, পরে দেখাতে হবে পারফরম্যান্স। এসব শর্ত পূরণ করে যে জাতীয় দলে হয়ত ফিরতে পারবেন সেটিও ভালোভাবেই জানেন তিনি। 
নিজেকে খেলার মধ্যে রাখা আর ফিটনেস ধরে রাখার জন্য আশরাফুল গত মৌসুম থেকে বিভিন্ন দেশের ঘরোয়া লীগে অংশগ্রহণ করছেন। সম্প্রতি ইংল্যান্ডের ঘরোয়া এক টুর্নামেন্টে খেলছেন আশরাফুল, আর তার পারফর্মেন্স বরাবরের মতই বেশ ভাল। অল্পের জন্য শতরান হাতছাড়া হলেও ৯৪ রানের সুন্দর এক ইনিংস বেড়িয়ে আসে তার ব্যাট থেকে। ২০১৭-১৮ মৌসুমে লিস্ট-এ তে পাঁচটি সেঞ্চুরি করেন আশরাফুল। নিষেধাজ্ঞা উঠার পর ২৩টি লিস্ট-এ ম্যাচে আশরাফুলের গড় ৪৭.৬৩ হলেও তবে এ সময়ে প্রথম শ্রেণির ক্রিকেটে সময়ে ১৩ ম্যাচে তার গড় ২১.৮৫।
মোহাম্মদ আশরাফুল নিজের ফিটনেস ধরে রাখার জন্য দেশে-বিদেশে ফিটনেস ক্যাম্প করছেন। গত মৌসুমে প্রিমিয়ার লীগের পরে চার মাস দেশে আর ইংল্যান্ডে  নিয়মিত জিম করে আট থেকে নয় কেজি ওজন কমিয়ে অনেকটাই হালকা ও ফিট হয়েছেন তিনি। ইংল্যান্ডের ঘরোয়া টুর্নামেন্টে খেলতে যাওয়ার আগে প্রিমিয়ার লিগের দল প্রাইম ব্যাংক সহকারি কোচ আশিকের অধীনে এক মাস ফিজিক্যাল ট্রেনিং এবং স্কিল ট্রেনিং করেন তিনি। আর তিনি ২০১৯ সালে আসন্ন ক্রিকেট বিশ্বকাপে খেলার জন্য যে ধরণের ফিটনেস দরকার তা অর্জনের আপ্রাণ চেষ্টা চালিয়ে যাচ্ছেন। এর পাশাপাশি ফ্র্যাঞ্চাইজি পেলে বিপিএল ও খেলবেন বলে আশা করছেন আশরাফুল সাথে তার ভক্তরাও। 
মাত্র ১৭ বছর বয়সে টেস্ট ক্রিকেটে অভিষিক্ত হওয়া মোহাম্মদ আশরাফুল তার ১২ বছরের ক্রিকেট ক্যারিয়ারে ৬১টি টেস্ট, ১৭৭ ওয়ানডে ও ২৩ টি টি-২০ ম্যাচ খেলেছেন। টেস্ট ক্রিকেটে সর্বকনিষ্ঠ সেঞ্চুরিয়ান মোহাম্মদ আশরাফুল আবারও মাঠে জাদুকরী ইনিংস উপহার দিবে- এই আশা করছেন সবাই। 

Mohammad Ashraful targets an International comeback after five-year ban ends

Sports Dipanwita Sutradhar on 16 August 2018

Mohammad Ashraful, who has recently been released from a five-year ban and his fans are expected to watch him again in the field. After all these years, is he still fit for playing international cricket? Will he be back in the national team? -that is the burning question.


Mohammad Ashraful, who has recently been released from a five-year ban and Ashraful fans are expected to watch him again in the field. He will also be allowed to play Bangladesh Premier League (BPL) in the next season. After all these years, is he still fit for playing international cricket?-that is the burning question.   
Mohammad Ashraful was fined and banned for eight years for match and spot-fixing during a T20 tournament in Bangladesh in 2013 by BPL Anti-Corruption Tribunal. In September 2013, the disciplinary panel of Bangladesh Cricket Board (BCB) reduced the punishment of Mohammad Ashraful and made it the five-year ban.
Though the ban has been lifted, former captain of Bangladesh National Cricket Team might not be playing in the national team at this time. Chief selector of Bangladesh National Cricket Team Minhazul Abedin Nannu said that to play in the national team, Ashraful will have to perform well in all format cricket and need to be fit. Chairman of Cricket Operations Committee Akram Khan said Ashraful's decision will be decided on the board's policy-making forum. On the other hand, BCB director and the media committee chairman Jalal Yunus gave the same opinion about Ashraful’s come back to the national team.
Mohammad Ashraful is not frustrated or upset over the chief selector, team management or authority. He thinks there are a lot of changes in the national team's game style over time. Accordingly, Ashraful is not expecting to start playing in the national team all of a sudden. He hopes to play in the national team with his persistence, hard work, and testing. Initially, he concentrates on his fitness test and later he will work on his performance. He is well aware of his ability and he needs to follow the process for being a part of the national team, again!
Ashraful has been participating in domestic leagues from different countries last season to keep him in the track and preserve his fitness. Recently, he is playing in England's domestic tournament, and his performance is just as good as before. Despite losing a century, beautiful innings of 94 runs came out of his bat by his outstanding patience and performance. 34 years old Ashraful showed a glimpse of his talent in domestic 50-over Dhaka Premier League competition last year when he scored five centuries in 13 matches to accumulate 665 runs at an average of 66.50.
Mohammad Ashraful has been conducting fitness camp at home and abroad to maintain his fitness. Last season, after four months of Premier League, he lost eight to nine kgs. For attaining proper fitness he is continuously working on reducing weight and another gym activates in England. Before participating in the domestic tournament in England, he had one-month of physical training and skill training under the premier league team, Prime Bank’s Assistant Coach Ashik.
Conclusively, Mohammad Ashraful has been trying hard to achieve the kind of fitness that required to be a part of the national cricket team of Bangladesh for the upcoming Cricket World Cup in 2019. Additionally, he will be able to play in the upcoming BPL if he gets a proper franchise. 
Mohammad Ashraful, who has played Test cricket at the age of 17, played 61 Tests, 177 ODIs and 23 Twenty20 matches in his twelve-year cricket career. The youngest centurion in test cricket, Mohammad Ashraful will again show his charming performance- everyone is hoping for that day.