হেলমেট ক্যাপ- বাংলা হেলমেটের শুভঙ্করের ফাঁকিতে মোটরসাইকেল চালক ও আরোহীরা

যাপিত জীবন দীপান্বিতা সূত্রধর || 8 October 2018

নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনের পরে ট্রাফিক পুলিশ কর্মকর্তাগণের ভাষ্যমতে মোটরসাইকেল চালক ও আরোহীদের মধ্যে হেলমেট ব্যবহারের প্রবণতা ও সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে অনেক। কিন্তু দুইটি হেলমেট রাখার এই আইনের মধ্যে মানুষ নিজেদেরকে এক প্রকার শুভঙ্করের ফাঁকিতে ফেলছে নিজেদের।


নিরাপদ সড়কের দাবিতে গত অগাস্ট মাসের দিকে শিক্ষার্থীদের টানা আন্দোলনের পর বাংলাদেশে বিশেষ করে ঢাকায় সরকার ও পরিবহন সংগঠনের পক্ষ থেকে সড়কে শৃঙ্খলা ফেরাতে কঠোর পদক্ষেপ নেয়া হয়। সড়ক দুর্ঘটনা আর যানবাহন চালকদের নৈরাজ্য কমাতে ট্রাফিক পুলিশ কঠোর অবস্থান নিয়েছে। দেশের ট্রাফিক আইন অনুযায়ী, মোটরসাইকেলের চালক ও আরোহীর হেলমেট পরা বাধ্যতামূলক। এর ব্যত্যয় হলে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নিতে পারে পুলিশ। হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেলে জ্বালানি বিক্রিও নিষিদ্ধ করা হয়েছে। 
ট্রাফিক পুলিশের মামলা আর জ্বালানি বিক্রি নিষিদ্ধ প্রধানত এই দুটি কারণে বেশিরভাগ মোটরসাইকেল আরোহী এবং চালক উভয়কেই হেলমেট পরতে দেখা যায় এখন। ট্রাফিক পুলিশ কর্মকর্তাগণের ভাষ্যমতে নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনের পরে অন্তত মোটরসাইকেল চালক ও আরোহীদের মধ্যে হেলমেট ব্যবহারের প্রবণতা ও সচেতনতা বৃদ্ধি পেয়েছে অনেক। কিন্তু দুইটি হেলমেট রাখার এই আইনের মধ্যে মানুষ নিজেদেরকে এক প্রকার শুভঙ্করের ফাঁকিতে ফেলছে নিজেদের। 
ঢাকার মোটরসাইকেলের যন্ত্রাংশের দোকানগুলো ঘুরে জানা যায় কমদামি হেলমেটের বিক্রয় হঠাৎ অনেক বেড়ে গেছে। ৩০০ থেকে ৬০০ টাকার এই হেলমেটগুলো মূলত যাত্রীকে কোন নিরাপত্তা দিতে পারবে না- বলেন বিক্রেতারাই। বিক্রেতারা আরও জানান ১৫০০ থেকে শুরু করে ৩৫০০ টাকা কিংবা তার বেশি দামের যে হেলমেট যাত্রীদের সুরক্ষা দিতে পারে সেসব বিক্রি কমে গেছে। মামলা থেকে রক্ষা পেতে আর পুলিশের চোখ এড়াতে হেলমেট দরকার- মোটরসাইকেল আরোহী আর চালকদের এরকম মানসিকতার কারণে কমদামি হেলমেট ক্যাপগুলোর প্রচলন বেড়ে গেছে। 
ভাল মানের হেলমেট যেগুলোর দাম একটু বেশি এবং ভাল নিরাপত্তা দিতে পারে সেগুলো চীন, ভারত থেকে আমদানি করা হয়। ১৫০০ থেকে শুরু করে ৩৫০০ টাকার বেশি হেলমেট গুলোতে বাইরের ভালমানের প্লাস্টিক ছাড়াও ভিতরে দুই স্তর থাকে যা মাথায় আঘাত থেকে চালক কিংবা আরোহীকে রক্ষা করতে সক্ষম। এই হেলমেট গুলোতে উপরে ফাইবার অংশ থাকে আর তার নিচে থাকে ফোম জাতীয় কাপড়ের স্তর- এর কারণে বাইরে থেকে আঘাত আসলে তা শোষণ করে চালক বা আরোহীর মাথার নিরাপত্তা নিশ্চিত করে। 
অন্যদিকে, কমদামি হেলমেট বা বাংলা হেলমেট গুলো কোন পরীক্ষা ছাড়াই স্থানীয় কারখানাগুলোতে তৈরি হচ্ছে। ২০০ থেকে শুরু করে ৬০০ টাকার মধ্যে হেলমেট গুলোতে কোন নিরাপত্তা স্তর নেই। শুধু একটা প্লাস্টিক স্তর আছে যা চালক বা আরোহীর মাথা আঘাত থেকে রক্ষা করতে পারবে না। এমনকি খারাপ ভাবে কোন দুর্ঘটনা ঘটলে এই প্লাস্টিকের হেলমেট এত পাতলা যে তা মাথায় ঢুকে গিয়ে বড় ধরণের ক্ষতি করে ফেলতে পারে। 
মোবাইল অ্যাপভিত্তিক মোটর সাইকেল রাইড শেয়ারিং সেবা উবার এবং পাঠাও তার যাত্রীদের হেলমেটের ব্যবস্থা করছে। পাঠাও তাদের প্রায় ১০ হাজার রাইডারকে বিনামূল্যে এইসব হেলমেট দিয়েছে। তুলনামূলক ভাবে এই হেলমেট গুলো একটু পাতলা হলেও মোটর সাইকেল আরোহীদের হেলমেট ব্যবহারে অভ্যস্ত করতে সাহায্য করছে এইগুলো। 
মামলা থেকে রক্ষা থেকে কিংবা জ্বালানি পাওয়ার জন্য হেলমেট ব্যবহারের প্রবণতা আগের থেকে বেড়েছে। নিরাপদ সড়কের দাবিতে আন্দোলনের পর থেকে হেলমেট ব্যবহার করা, জেব্রা ক্রসিং ব্যবহার করে রাস্তা পার হওয়া এসব বিষয়ে ট্রাফিক পুলিশ কম জনবল নিয়ে শক্তভাবে কাজ করে যাচ্ছে। ট্রাফিক পুলিশের জনবল বাড়লে এবং এর সাথে মানুষ আরও অভস্ত্য হলে ভাল মানের হেলমেট ব্যবহার করবে বলে আশা করা যায়। পুরান ঢাকার বংশাল, মিরপুর ১০, বাংলামোটর, মিরপুর ২ নম্বর ৬০ ফিট, মালিবাগ, খিলগাঁ তালতলা এইসব জায়গায় ভালমানের হেলমেট পাওয়া যায়। 

Motorbike riders and passengers compromising their safety over money

Lifestyle Dipanwita Sutradhar on 8 October 2018

Motorcycle riders and passengers are being seen wearing helmets in recent times. According to traffic police officials, the habit of wearing helmets among motorists and commuters has increased. Yet, under the law of keeping two helmets, bikers and passengers ignorantly doing something very risky.


Road accidents, safe road- these are the most discussed topic in the very recent time in Bangladesh. After the teen movement the Bangladesh government and transportation. Traffic police and government have taken a stern position to reduce road accidents and traffic congestion of vehicles. According to the traffic laws of the country, the motorcycle driver, as well as the passengers, should wear helmets and this is mandatory. The police are taking disciplinary action if anyone is not following the rules. Moreover, fuel filling stations are not allowing motorbikers without helmets and they have been banned from refilling fuel.  
Most of the motorcycle riders and passengers are being seen wearing helmets because of traffic police cases and banning fuel refilling without helmets. According to traffic police officials, after the teen movement demanding safe road, the awareness of the habit of wearing helmets among motorists and commuters has increased. Then again under the law of keeping two helmets, bikers and pillion passengers ignorantly doing something very dangerous. 
Wholesalers of motorcycle parts in Dhaka city informed that the demand for low-cost helmets has increased suddenly. These helmets priced from 300 to 600 taka will not be able to provide any security to the passengers - said the vendors. The sellers further said that the sale of helmets that can save the passengers which priced from 1500 to 3500 taka or more is reduced. Wearing helmets is just a formality- due to such mentality of motorcyclists and passengers, the sale of low-cost helmet caps has increased.
Good quality helmets whose prices are slightly higher than low-cost helmets and can provide better protection are mainly imported from China and India. In these high priced helmets, there are two layers- the outer layer made with quality plastic, which can protect the driver or the passengers from severe head injuries. Additionally, the inner part of the helmets contains the fiber portion with a foam cloth layer. The outer layer basically tackles the crash and the inner part absorbs it then lessen the severity of the injury. 
On the other hand, the low priced helmet or colloquial term Bangla helmets are being manufactured in local factories without any testing with inferior quality raw materials. There is only one plastic layer that cannot protect the driver or the passengers from the head injury. This plastic helmet is so thin that if a serious accident occurs in a bad way- it can cause major damage to the head.
Recently, the mobile app-based motorbike ride-sharing services of Bangladesh starts to provide free helmets for the passengers. One of the famous ride-sharing service ‘Pathao’ provides almost 10 thousand free helmets to their riders. These helmets are comparatively thin but these are helping motorbikers for getting used with wearing helmets and maintaining the traffic rules.   
The trend of using helmets has already increased and people are getting comfortable with it. Traffic police force has been working hard and continuously with less manpower for achieving safe roads. 
It is expected that in near future traffic police will increase and then the quality of helmets might be checked by them too. Till then, motorbike riders need to consider their safety first and have to use high-class helmets. Old Dhaka's Bangshal, Mirpur 10, Banglamotor, Mirpur number 60 Feet, Malibagh, Khilgaon Taltola in these areas, bikers will get high-grade helmets with an optimum price.