স্পাইডার-ম্যান, আয়রন ম্যান, ক্যাপ্টেন আমেরিকা এর স্রষ্টা স্ট্যান লী আর নেই

বিনোদন প্রতিদিন দীপান্বিতা সূত্রধর || 13 November 2018

স্পাইডার-ম্যান, আয়রন ম্যান, দি হাল্ক, থর, ক্যাপ্টেন আমেরিকা,ব্লাক প্যান্থার এর স্রষ্টা স্ট্যান লী আর নেই। গত ১২ নভেম্বর সিডার-সাইনাই মেডিক্যাল সেন্টারে ৯৫ বছর বয়সী স্ট্যান লী শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। স্ট্যান লি'র মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন তার মেয়ে জেসি এর অ্যাটর্নি কার্ক শ্ন্যাক।


স্পাইডার-ম্যান, এক্স-ম্যান , ফ্যান্টাস্টিক ফোর, আয়রন ম্যান, দি হাল্ক, থর, ক্যাপ্টেন আমেরিকা,ব্লাক প্যান্থার কিংবা ডেয়ারডেভিল এই কমিক্স বা মুভিগুলোর সাথে পরিচিত যারা পরিচিত তাদের সবার কাছেই পরিচিত একটি নাম স্ট্যান লী। 
মারভেল কমিক্স এর গল্পের ভিত্তিতে কিংবা মার্ভেল সিনেম্যাটিক ইউনিভার্স এর সিনেমাগুলতে ক্যামিও অ্যাপিয়ারেন্সে সবসময়ই দেখা যেত স্ট্যান লীকে। অনেকে না জানলেও এই স্ট্যান লী এইসব অতিমানবীয় কাল্পনিক চরিত্রগুলোর স্রষ্টা। মার্ভেল কমিক্স এর প্রতিষ্ঠাতা স্ট্যান লী, জ্যাক কিরবি , স্টিভ ডিকোর এর মত গুণী মানুষের সাথে মিলে গড়ে তোলেন সুপারহিরো বা অতিমানবীয় মানুষের এক জগত যা বিশ্বের হাজার হাজার তরুণকে এখনো অনুপ্রাণিত করে যাচ্ছে। 
আর সেই স্ট্যান লী আর নেই। গত সোমবার (১২ নভেম্বর)লস এঞ্জেলেসের সিডার-সাইনাই মেডিক্যাল সেন্টারে ৯৫ বছর বয়সী স্ট্যান লী শেষ নিঃশ্বাস ত্যাগ করেন। হঠাৎ করে জরুরী ভিত্তিতে তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে তাকে মৃত ঘোষণা করে কর্মরত চিকিৎসক। স্ট্যান লি'র মৃত্যুর খবর নিশ্চিত করেন তার মেয়ে জেসি এর অ্যাটর্নি কার্ক শ্ন্যাক। সঠিক কি কারণে তিনি মারা গেছেন তা এখন নিশ্চিত করে জানা যায় নি। তবে তিনি বেশ কিছুদিন ধরে নিউমোনিয়া এবং চোখের বেশ কিছু সমস্যায় ভুগছিলেন। 
১৯৩৯ সালের দিকে স্ট্যান লী ‘টাইমলি কমিক্স’ এর কাজ দিয়ে দিয়ে তার পেশা জীবনের শুরু। সেখানে তিনি একাধারে লেখক, সম্পাদক এবং মাঝে মাঝে ইলাস্ট্রেটর বা আঁকিয়ে শিল্পী হিসাবেও কাজ করতেন। পঞ্চাশ আর ষাটের দশকে কমিক্স বলতে মানুষ যখন ডিসি কমিক্সকে বুঝত ঠিক তখনই কমিক্সের জগতে পরিবর্তন আনেন স্ট্যান লী। ব্যাটম্যান, সুপার ম্যান, ওয়ান্ডার ওম্যান, অ্যারো এর মত সুপার হিরো আর লেক্স লুথার, জোকারের মত সুপার ভিলেনদের সাথে পাল্লা দিতে আসে স্পাইডার-ম্যান, এক্স-ম্যান, হাল্ক আর থর। ষাটের দশকের শেষের দিকে মারভেলস কমিক্সের প্রায় ৫০ মিলিয়ন এর মত বই বিক্রি হয়। ১৯৭২ সালে স্ট্যান লী মারভেল কমিক্সের পরিচালক হন। একশটিরও বেশি কাল্পনিক চরিত্র সৃষ্টি করেছেন স্ট্যান লি। উল্লেখ্য, ২০০৯ সালে ওয়াল্ট ডিজনি কো. ৪ বিলিয়ন ডলারের বিনিময়ে কিনে নেয় মার্ভেল এন্টারটেইনমেন্ট’কে।
স্ট্যান লী জীবনে বেশ কয়েকটি সম্মাননা পেয়ছেন। ২০০৮ সালে তিনি ন্যাশনাল মেডেল অফ আর্টস এবং প্রেসিডেন্ট জর্জ ডব্লিউ বুশের কাছে থেকে ন্যাশনাল মেডেল অফ হিউম্যানিটিস লাভ করেন। দ্বিতীয় বিশ্বযুদ্ধের সময় তিনি যুক্তরাষ্ট্রের সেনাবাহিনীতে থেকে তাতে অংশগ্রহণ করেন। 
স্ট্যান লী এর মৃত্যুর সংবাদে সারা বিশ্বের কমিক্স প্রেমীদের মাঝে নেমে এসেছে শোকের ছায়া। মারভেলের পরবর্তী কিংবা মুভিগুলোতে এই মজার মানুষটির ক্যামিও থাকবে না আর সৃষ্টি হবে না আয়রন ম্যান, স্পাইডার ম্যানের মত রোমাঞ্চকর গল্প। ১৯২২ সালে নিউ ইয়র্ক শহরের এক নিম্নবিত্ত দর্জির পরিবারে জন্ম নেয়া এই মানুষটি বিশ্বাস করতেন সাফল্য আর সৌভাগ্যে। সারাবিশ্বের মানুষকে ফ্যান্টাসির দুনিয়ায় ভাসিয়ে এক অন্যরকম আনন্দ দিয়ে গেছেন, তরুণ প্রজন্মকে সুপারহিরোর গল্পের মাধ্যমে সবসময় অনুপ্রাণিত করেছেন ভাল কাজ করতে, নিজের প্রতিভায় বিশ্বাস রাখতে। তার এই সৃষ্টি অমর হয়ে থাকবে আর সারাবিশ্বের মানুষকে আনন্দ দিতে থাকবে কাল্পনিক জগতের এই কাহিনীগুলো। 

Marvel Comics visionary Stan Lee died at the age of 95 in Los Angeles

Entertainment Dipanwita Sutradhar on 13 November 2018

Stan Lee is no more. Last Monday, 95-year-old Stan Lee took his last breath at the Cedar-Sinai Medical Center in Los Angeles. Stan Lee's death confirmed by her daughter Jesse's attorney Kirk Schneck. The exact reason is not confirmed yet- why he died.


Stan Lee- the name is familiar to all those who are acquainted with Spider-Man, X-Men, Fantastic Four, Iron Man, The Hulk, Thor, Captain America, Black Panther or Daredevil related comics or movies. 
Stan Lee was always seen in the movies on which were based on the story of Marvel Comics and Marvel Cinematic Universe as a cameo appearance. Although many people do not know, this aged funny man- Stan Lee is the creator of these superhuman fictional characters of Marvel Comics. With the help of Jack Kirby, Steve Dico; Marvel Comics’ founder, Stan Lee created a world of inspirational superheroes with superpower by whom thousands of young people around the world will be inspired.
King of the Marvel Comics, Stan Lee is no more. Last Monday (November 12th), 95-year-old Stan Lee took his last breath at the Cedar-Sinai Medical Center in Los Angeles. Suddenly, after taking him to the hospital, he was declared dead by a doctor. Stan Lee's death confirmed by her daughter Jesse's attorney Kirk Schneck. The exact reason is not confirmed yet- why he died. But he had been suffering from pneumonia and eyes related problems for some days.
In 1939, she started his career as a comics pioneer in 'Timely Comics'. There he worked as a writer, editor and occasionally illustrator. In the 50’s and 60’s, when people used to understand comics as DC or national comics, Stan Lee brought a breakthrough in the usual comic world. 
In the world of Batman, Super Man, Wonder Woman, Arrow, and Lex Luther, Joker- Stan Lee added something new and innovative characters like an orphan and super nerd Spider-Man, X-Men with lab-made super soldiers, or The Greek God direct from the Asgard- Thor. Nearly 50 million books of Marvels Comics were sold at the end of the 1960s. In 1972 Stan Lee became the director of Marvel Comics plus created more than a hundred fictional characters. Note that in 2009 Walt Disney Co bought Marvel Entertainment, for 4 billion dollars.
Stan Lee has received several awards in life. In 2008, he received the National Medal of Arts and the National Medal of Humanities from U.S. President George W. Bush. During World War II, he participated in the war as a member of the United States Army.
In the news of Stan Lee's death, comic lovers around the world mourned. This humorous and creative person will not have a cameo appearance in the Marvel movies anymore. Stan Lee was born in New York City in a low-class tailor's family in 1922. This man believed in success and good luck and he achieved those in this world. He provided different feelings of joy, charm through his world of fantasy. The young generation has always inspired superhero story to do good work, to have faith in themselves. His creation will be immortal and the people of the whole world will be pleased to have these superhero stories of the Marvel fictional world.